সাহসিকতার সাথে করোনা মোকাবেলায় কাজ করতে নির্দেশ দিলেন ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জ মহোদয়

ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান পিপিএম, বিপিএম (বার) পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আমাদের জন্ম একদিন কিংবা মৃত্যু একদিন, এটি থেকে কিন্তু বাহিরে থাকতে পারবোনা। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে। কারো সড়কসাহসিকতার সাথে করোনা মোকাবেলায় কাজ করতে নির্দেশ দিলেন ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জ মহোদয়

ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান পিপিএম, বিপিএম (বার) পুলিশের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আমাদের জন্ম একদিন কিংবা মৃত্যু একদিন, এটি থেকে কিন্তু বাহিরে থাকতে পারবোনা। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে। কারো সড়ক দূঘটনায় মৃত্যু হচ্ছে। মৃত্যু সকলেরই হবে। আমাদের পুলিশ অফিসাদের ভীত হওয়ার কিছু নেই। সাহসিকতার সাথে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কাজ করতে হবে। বন্দর উপজেলায় করোনায় একজনের মৃত্যুর ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও বিভিন্ন সড়ক পরিদর্শণ শেষে চাষাড়ায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, স্বাধীনতার প্রথম প্রহরে শুরু থেকে বাংলাদেশ পুলিশ একটি বিরচিত আচরন এবং বিরত্ব গাথা নিয়েই পুলিশ গর্বের সাথে চলে আসতেছে ৭১ সাল থেকে। এখনও চলছে। বর্তমানে স্বাস্থ্যকর্মীদের পর পুলিশের কিন্তু ঝুঁকিটা এক নম্বরে। পুলিশ কিন্তু রাস্তা ঘাটে সব জায়গায় জন সচেতনতা ও নিরাপত্তায় কাজ করছে। তাই তারা ঝুঁকিতে রয়েছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন মনিরুল ইসলাম (পদোন্নতিপ্রাপ্ত), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দীকি, খ সার্কেল খোরশেদ আলম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান সহ জেলার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা। দূঘটনায় মৃত্যু হচ্ছে। মৃত্যু সকলেরই হবে। আমাদের পুলিশ অফিসাদের ভীত হওয়ার কিছু নেই। সাহসিকতার সাথে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কাজ করতে হবে। বন্দর উপজেলায় করোনায় একজনের মৃত্যুর ঘটনায় শুক্রবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও বিভিন্ন সড়ক পরিদর্শণ শেষে চাষাড়ায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান বলেন, স্বাধীনতার প্রথম প্রহরে শুরু থেকে বাংলাদেশ পুলিশ একটি বিরচিত আচরন এবং বিরত্ব গাথা নিয়েই পুলিশ গর্বের সাথে চলে আসতেছে ৭১ সাল থেকে। এখনও চলছে। বর্তমানে স্বাস্থ্যকর্মীদের পর পুলিশের কিন্তু ঝুঁকিটা এক নম্বরে। পুলিশ কিন্তু রাস্তা ঘাটে সব জায়গায় জন সচেতনতা ও নিরাপত্তায় কাজ করছে। তাই তারা ঝুঁকিতে রয়েছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশাসন মনিরুল ইসলাম (পদোন্নতিপ্রাপ্ত), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দীকি, খ সার্কেল খোরশেদ আলম, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান সহ জেলার উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *